২২ এপ্রিল, ২০১৯ || ৯ বৈশাখ ১৪২৬

শিরোনাম
  ১০ দিন আগেই সতর্ক করেছিলেন শ্রীলঙ্কার পুলিশপ্রধান        শ্রীলঙ্কায় কারফিউ জারি, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বন্ধ        গির্জা-হোটেলে বিস্ফোরণে শ্রীলঙ্কায় নিহত ১৮০, সেনা মোতায়েন     
১১৭

ঠাণ্ডা প্রতিরোধে ৮ ভেষজ প্রতিষেধক

প্রকাশিত: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৬   আপডেট: ৮ জানুয়ারি ২০১৭

ঋতু পরিবর্তনের এই সময় হুট করে গলা ব্যথা ও কাশি শুরু হয়ে যায় প্রায়ই। ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস, দূষণ, অ্যালার্জি ইনফেকশনসহ নানান কারণে গলা ব্যথা ও খুসখুসে কাশি হতে পারে। এ সময় কিছুটা সাবধানতা অবলম্বন করা জরুরি। ঠাণ্ডাজাতীয় খাবার থেকে দূরে থাকার পাশাপাশি গার্গল করতে পারেন। ১ গ্লাস কুসুম গরম পানিতে ১ চা চামচ লবণ মিশিয়ে গার্গল করুন। গলা ব্যথা কমানোর মহৌষধ এটি। সমস্যা বেড়ে গেলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন দ্রুত। প্রাথমিক অবস্থায় প্রাকৃতিকভাবে গলা ব্যথা ও খুসখুসে কাশি দূর করতে কিছু ভেষজ উপাদানও সাহায্য করে। জেনে নিন সেগুলো কী কী- রসুন রসুনের অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিসেপটিক উপাদান প্রাকৃতিকভাবে ঠাণ্ডাজনিত গলা ব্যথা ও অসস্থি দূর করতে পারে। কাঁচা অথবা রান্না করে খেতে পারেন রসুন। আপেল সিডার ভিনেগার ১ গ্লাস কুসুম গরম পানিতে ১ টেবিল চামচ আপেল সিডার ভিনেগার, কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ও ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে দিনে দুইবার পান করুন। গলা ব্যথা ও খুসখুসে ভাব কমে যাবে। লেবু ১ গ্লাস কুসুম গরম পানি নিন। একটি লেবুর রস মেশান এতে। ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে ভালো করে নেড়ে পান করুন সকালে। কমে যাবে গলা ব্যথা। মধু আদিকাল থেকেই ঠাণ্ডা লাগার প্রাকৃতিক প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে মধু। ২ টেবিল চামচ মধু ১ কাপ কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে কয়েকবার পান করুন দিনে। ঘুমানোর আগে ১ চা চামচ মধু খেলেও উপকার পাবেন। দারুচিনি ১ চা চামচ মধুর সঙ্গে কয়েক ফোঁটা দারুচিনির তেল মেশান। এটি দিনে দুইবার খান। দ্রুত মুক্তি পাবেন গলা ব্যথা ও ঠাণ্ডাজনিত অস্বস্তি থেকে। হলুদ ১ গ্লাস কুসুম গরম পানিতে সামান্য হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে পান করুন। দূর হবে গলা ব্যথা। লবঙ্গ গলা ব্যথা ও ঠাণ্ডা লাগায় স্বস্তি পেতে দুটি লবঙ্গ চিবিয়ে খান। আদা পানি গরম করে কয়েক টুকরা আদা দিন। ১০ মিনিট ফুটান এটি। ছেঁকে পানিটুকু পান করুন দিনে দুইবার। স্বাদ বেশি ঝাঁঝালো হলে ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে নিতে পারেন। কমে যাবে গলা ব্যথার সমস্যা। তথ্য: বোল্ডস্কাই
রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত