২১ জানুয়ারি, ২০২০ || ৭ মাঘ ১৪২৬

শিরোনাম
  ২৪ ঘণ্টায় সৌদি থেকে ফিরলেন ২২৪ বাংলাদেশি        স্ত্রী-শাশুড়িসহ ৪ জনকে হত্যা, এর পর নিজের আত্মহত্যা        বুঝতে পারছি না কেন ভারত সরকার এটা করল : প্রধানমন্ত্রী     
১২২

নয়ন বন্ডের বাসায় চুরি, মিলছে না গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬ আগস্ট ২০১৯  

বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযদ্ধে নিহত নয়ন বন্ডের বাসায় চুরির ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

চোরেরা তালা ভেঙে বাসায় ঢুকে প্রায় ১০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও অর্ধলক্ষাধিক নগদ টাকা ও গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাগজপত্র নিয়ে গেছেন বলে নয়নের মা সাহিদা বেগম দাবি করেছেন। তিনি এ বিষয়ে বরগুনা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সাহিদা বেগম জানান, তিনি এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সকালে পাশের ঘরের ভাড়াটিয়ারা তালা ভাঙা দেখতে পেয়ে তাকে মুঠোফোনে খবর দেন। খবর পেয়ে তিনি বাসায় এসে দরজার তালা ভাঙা দেখতে পান। পরে ঘরে ঢুকে আসবাব পত্র এলোমেলা দেখে বাসায় থাকা নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার খুঁজতে থাকেন।

সাহিদা বেগম আরও জানান, নয়নের মিলাদের জন্য বাসায় তিনি ৪১ হাজার টাকা রেখেছিলেন। এ ছাড়া দেড় ভরি ওজনের কানের ঝুমকা, আট আনা ওজনের কানের রিং, তিন ভরি ওজনের গলার হার, তিন ভরি ওজনের হাতের রুলি, এক ভরি ওজনের মাথার টিকলি, তার বড় ছেলে মিরাজের স্ত্রীর ঘরে রাখা ১৪ হাজার টাকা, নাতনির গলার আট আনা ওজনের স্বর্ণের চেন ও পূত্রবধূ ও নাতনির হাতের দেড় ভরি ওজনের তিনটি আংটি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সবকিছুই রাতের আঁধারে চোরেরা চুরি করে নিয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। নয়নের কিছু কাগজপত্র ও জমির দলিলপত্রও চুরি হয়েছে বলে তিনি পুলিশের কাছে দেওয়া বিবরণে উল্লেখ করেন।

নয়ন বন্ডের বাসার পাশেরই অপর একটি বাসার ভাড়াটিয়া আনোয়ার হোসেন জানান, সকালে তিনি বাসা থেকে বের হয়ে নয়নের বাসার তালা ভাঙা অবস্থায় দেখতে পেয়ে নয়ননের মাকে মুঠোফানো বিষয়টি জানান। পরে তিনি এসে বাসায় প্রবেশ করে টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার খুঁজে পাননি।

এ বিষয়ে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবির হোসেন মাহমুদ জানান, নয়নের মা চুরির খবরটি জানিয়েছেন। তার বাসায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের পর অভিযোগ গ্রহণ করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন
রাজধানীর বাইরে বিভাগের সর্বাধিক পঠিত