২৯ অক্টোবর, ২০২০ || ১৪ কার্তিক ১৪২৭

শিরোনাম
  বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ‘টেকসই ভবিষ্যৎ’ নিশ্চিতের আহ্বান প্রধানমন্ত্রী        অবশেষে হাসপাতাল ছাড়লেন ইউএনও ওয়াহিদা        অবশেষে হাসপাতাল ছাড়লেন ইউএনও ওয়াহিদা     
৩৫২

যেভাবে শনাক্ত হলো করোনা রোগী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ৮ মার্চ ২০২০  

আইইডিসিআরের নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। ছবি : সংগৃহীত

আইইডিসিআরের নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। ছবি : সংগৃহীত

বাংলাদেশে তিনজন নাগরিকের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পেয়েছে বলে জানিয়েছে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। রোববার বিকেলে আইইডিসিআরের সম্মেলন কক্ষে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান সংস্থাটির পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা।
আক্রান্তদের মধ্যে একজন নারী এবং দুজন পুরুষ রয়েছেন। তাদের মধ্যে পুরুষ দুজন ইতালিফেরত বাংলাদেশি, জানান ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা।
আক্রান্তদের কীভাবে শনাক্ত করা হলো-এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘তারা (ইতালি থেকে) দেশে আসার পরে তাদের যখন লক্ষণ উপসর্গ হয়েছে, আমাদের হটলাইনে যোগাযোগ করেছেন। তার ভিত্তিতেই আমরা নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করে তাদের মধ্যে যখন পেয়েছি তখন আমরা কনটাক্ট রিচিং করেছি এবং আপনারা বুঝতে পারছেন যে, আমরা গতকাল পেয়ে গতকালই কনটাক্ট রিচিং করে নমুনা সংগ্রহ করেছি এবং সেখান থেকে আমরা আরও একজনকে পেয়েছি।’
আইইডিসিআরের পরিচালক বলেন, ‘আমরা আমাদের এই কার্যক্রমগুলো অর্গানাইজড হয়ে যেভাবে করছি, তাতে করে এটা নিয়ে আমাদের কারোরই দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। আমরা অবশ্যই করোনাকে প্রতিরোধ করে রাখতে পারব।’
সেব্রিনা ফ্লোরা আরও জানান, আক্রান্তদের বয়স ২০-৩৫ বছরের মধ্যে। তারা করোনাভাইরাসজনিত রোগ কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছেন। গতকালই তাদের নমুনা পরীক্ষা করে রোগের বিষয়ে নিশ্চিত করা গেছে।
আইইডিসিআরের মহাপরিচালক জানান, বর্তমানে আক্রান্তদের শারীরিক অবস্থা ভালো। তাদের হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তবে কোন হাসপাতালে তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে সে বিষয়ে কোনো তথ্য দেয়নি আইইডিসিআর যাতে তাদের পরিচয় সনাক্ত করা না যায়।
চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে অন্তত ৭০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন অন্তত ৩ হাজার ৬০০ মানুষ। এই ভাইরাসে সংক্রমণের সংখ্যা এখন পর্যন্ত লাখ ছাড়িয়েছে। দিন দিন সংক্রমণের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

আরও পড়ুন
রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত